পদার্থবিজ্ঞান

শ্রবণ সহায়ক যন্ত্র কী? মানুষের শব্দ শ্রবণ কৌশল বর্ণনা করো।

যাদের শ্রবণ করার ক্ষমতা কম যেমন বধির বা আংশিক বধির লোকদের শ্রবণ কাজে সহায়তার জন্য যে যন্ত্র ব্যবহার করা তাই হেয়ারিং এইড বা শ্রবণ সহায়ক যন্ত্র। এই যন্ত্রে মাইক্রোফোন, শব্দ বিবর্ধক ও ছোট আকৃতির স্পিকার থাকে। কানে এই যন্ত্র লাগালে শ্রবণের কাজ সহজ হয়।

মানুষের শব্দ শ্রবণ কৌশল বর্ণনা করো।

মানুষের কান তিনটি অংশ নিয়ে গঠিত। যথা : ক. বহিকর্ণ; খ. মধ্যকর্ণ; গ . অন্তঃকর্ণ।

শ্রবণ অনুভূতি সৃষ্টি করার জন্য শব্দ তরঙ্গকে কানের এই তিনটি অংশেই পৌছাতে হবে। বহিকর্ণ শব্দকে মধ্যকর্ণে পৌছাতে সাহায্য করে। মধ্যকর্ণ থেকে শব্দ তরঙ্গ অন্তঃকর্ণে পৌছায়। অন্তঃকর্ণের মুখে একটি ডায়াফ্রাম বা পর্দা থাকে। শব্দ অন্তঃকর্ণের ডায়াফ্রামে কম্পন সৃষ্টি করে। অন্তঃকর্ণের ভেতরে এক ধরনের তরল পদার্থ থাকে। ডায়াফ্রামের কম্পন তরল পদার্থে পরিবর্তনশীল চাপ সৃষ্টি করে। এর ফলে তরল পদার্থ ক্রমান্বয়ে সংকোচিত ও প্রসারিত হয়। তরলের এই সংকোচন ও প্রসারণ অন্তঃকর্ণের অন্যান্য অঙ্গাণুর সহায়তায় স্নায়ুতন্ত্রে পৌছায়। স্নায়ুতন্ত্রের মাধ্যমে সংকেত আকারে তা মানুষের মস্তিষ্কে পৌছালে মানুষ শব্দ শুনতে পায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button