Social Media

আপনি কোথায় আছেন সেই গোপনীয় তথ্য শেয়ার হচ্ছে অন্যদের সাথে?

লোকেশন শেয়ার বিতর্কে জবাব দিয়েছে Instagram

সোশ্যাল মিডিয়ায় আজকাল মানুষ যত বেশি সময় কাটাচ্ছেন, ততই এই প্ল্যাটফর্মগুলি সম্পর্কে নানাবিধ চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসে চলেছে। ডেটা ব্রিচ, ইউজার ডেটা ট্র্যাকিং ইত্যাদি বিষয়গুলি এখন বেশিরভাগ দিনই খবরের শিরোনামে উঠে আসে। তবে জনপ্রিয় ফটো-ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম Instagram (ইনস্টাগ্রাম) সম্পর্কে একটি পোস্ট সম্প্রতি ব্যাপক মাত্রায় ভাইরাল হচ্ছে। এই পোস্টে দাবি করা হচ্ছে যে, Instagram নাকি তার ইউজারদের লোকেশন শেয়ার করে। ফলে সোশ্যাল মিডিয়াতে অধিকাংশ মানুষই (পড়ুন নেটপাড়ার বাসিন্দারাই) এই বহুল জনপ্রিয় অ্যাপটির তীব্র সমালোচনা করছেন। আর চতুর্দিকে তুমুল হইচই পড়ে যাওয়ায় অবশেষে এই বিষয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছে Meta (মেটা) মালিকানাধীন অ্যাপটি। এক্ষেত্রে সংস্থাটি স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে যে, এমন পোস্ট দেখলে ইউজাররা যেন মোটেই বিশ্বাস না করেন, কারণ এটা সম্পূর্ণভাবে ভুল; Instagram কখনোই কোনো ইউজারের লোকেশন শেয়ার করে না।

কী বলা ছিল Instagram সম্পর্কে ছড়িয়ে পড়া পোস্টে?

ভাইরাল হওয়া পোস্টটিতে দাবি করা হয়েছে যে, নতুন আইওএস আপডেটের পর ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের লোকেশন শেয়ার করছে। তবে খোদ কোম্পানির সিইও জানিয়ে দিয়েছেন যে এমনটা মোটেই হচ্ছে না। সংস্থার মতে, ছবি ও পোস্ট ট্যাগ করার জন্য ইউজারদের লোকেশন অবশ্যই দেখা যায় কিন্তু তা সর্বসমক্ষে শেয়ার করার আগে অবশ্যই ব্যবহারকারীদের অনুমতি নেওয়া হয়; তাছাড়া গ্রাহকদের অজান্তে অন্য কারোর সঙ্গে তা কোনোমতেই শেয়ার করা হয় না।

লোকেশন শেয়ার বিতর্কে জবাব দিয়েছে Instagram

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামের সিইও তাঁর বিবৃতিতে বলেছেন যে, কোম্পানির এমন কোনো পলিসি নেই যার অধীনে তারা ইউজারদের লোকেশন শেয়ার করতে পারে; এমন কাজ পুরোপুরিভাবে সংস্থাটির নীতিবিরুদ্ধ। ফলে কোম্পানির সিইওর কথায় এ বিষয়ে সুনিশ্চিত হওয়া যায় যে, কোনো ইউজারের লোকেশনই ইনস্টাগ্রামের তরফে শেয়ার করা হচ্ছে না।

এছাড়া Instagram-এর সিইও আরও জানিয়েছেন যে, ইউজাররা চাইলেই তাদের লোকেশন বন্ধ করে দিতে পারেন, এ ব্যাপারে তাদের পূর্ণ স্বাধীনতা আছে। ইউজাররা চাইলেই তাদের ডিভাইস থেকে লোকেশন সার্ভিসটি হ্যান্ডেল করতে পারেন। আর তারা যাতে নিজেদের ইচ্ছেমতো যত খুশি ডেটা Instagram-এ শেয়ার করতে পারেন, আর সেই কারণেই লোকেশন শেয়ার সম্পর্কিত বিষয়ে ইউজারদের অনুমতি নেওয়া হয়। এবং এটি কোম্পানির প্রাইভেসি পলিসিতেও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। সেক্ষেত্রে যদি কোনো ইউজার তাদের লোকেশন সার্ভিস বন্ধ করে রাখেন, তাহলে কোনো অবস্থাতেই তাদের লোকেশন শেয়ার করা যাবে না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button