Smartphone News

বিশ্বকাপ ফুটবলে মাঠে থাকবে ভিভো

কাতার বিশ্বকাপে মাঠ মাতাবে ভিভো

আর মাত্র কয়েকমাস। কাতারে বসছে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রীড়া আসর ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল। সারাবিশ্বের মানুষ প্রায় এক মাস বুঁদ হয়ে থাকবে মেসি-নেইমার-এমবাপেদের খেলায়। তারুণ্যের আনন্দকে বাড়িয়ে দিতে ২০২২ সালের ফিফা বিশ্বকাপের অফিসিয়াল স্মার্টফোন স্পন্সর হিসেবে থাকছে ভিভো। ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপেও অফিসিয়াল স্মার্টফোন ছিল জনপ্রিয় এই গ্লোবাল স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

চলতি বছর ২১ নভেম্বর কাতারে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল। ফাইনাল ম্যাচটি হবে ১৮ ডিসেম্বর। এশিয়াতে দ্বিতীয়বারের মত বসছে জনপ্রিয় এই আসর। ২০১৭ সাল থেকে ফিফা কাছে টেনে নিয়েছে জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ভিভোকে।

ফিফার সঙ্গে এই অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ভিভো নিজেদের অফিসিয়াল প্রতীক, পরিচিতিতে এই স্পন্সরশিপের বিষয়টি পুরোপুরি তুলে ধরবে। আর এর মাধ্যমে আরো একবার ফুটবলপ্রেমীদের কাছে পৌঁছে যাবে ভিভো।
ফিফার সাথে স্পন্সরশিপের বিষয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে ভিভো’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর ডিউক জানান, ‘ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ এর সাথে ভিভোর স্পন্সরশিপ স্মরণীয় একটি মুহূর্ত। ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে যেকোন বয়সের মানুষকে নির্মল আনন্দ দেয় ফুটবল। আর এ কারণেই ফুটবলের ভক্ত কোটি কোটি মানুষ। আর এই ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ ২০২২ এর মাধ্যমে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের আরো একটি সুযোগ পাবে ভিভো। এরইমধ্যে ৬০টিরও বেশি দেশে মানুষের হাতে পৌঁছে গেছে ভিভো। এই অংশীদারিত্ব বিশ্বব্যাপী যারা ভিভো ব্যবহারকারী রয়েছে তাদের অন্যরকম অভিজ্ঞতা প্রদান করবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়ায় নিজেদের যাত্রা শুরুর পর ভিভো গ্রাহকদের ভালো কিছু উপহার দিয়ে আসছে। ক্রেতাদের সব সময়ই নতুন কোন চমক উপহার দিয়ে আসছে ভিভো।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button