Social Media

ব্যবহারকারীর ‘জাতি পরিচয়’ জানতে চাইবে ইনস্টাগ্রাম

নিজস্ব প্ল্যাটফর্মে ভিন্ন ভিন্ন জাতি পরিচয়ের মানুষের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে আগ্রহী ইনস্টাগ্রাম

নিজস্ব প্ল্যাটফর্মে ভিন্ন ভিন্ন জাতি পরিচয়ের মানুষের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে আগ্রহী ইনস্টাগ্রাম; তাই শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবহারকারীদের কাছে তাদের জাতি পরিচয় সম্পর্কে জানতে চাইবে ফটো ও ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মটি।

সম্প্রতি এক ব্লগ পোস্টে নতুন পরিকল্পনার খবর জানিয়েছে ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ। তবে ব্যবহারকারীদের সবাইকে এ প্রশ্ন করবে না প্ল্যাটফর্মটি। জরিপের প্রশ্ন করার জন্য ব্যবহারকারীদের বাছাই করা হবে দৈবচয়ন ভিত্তিতে।

প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার বেলায় কোনো বাধ্যবাধকতা থাকবে না বলে জানিয়েছে ইনস্টাগ্রাম। উত্তর দিতে না চাইলে প্রশ্ন এড়িয়ে যেতে পারবেন ব্যবহারকারী।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ জানিয়েছে, ইনস্টাগ্রাম প্ল্যাটফর্মের জরিপের কাজ পরিচালনা করবে ব্রিটিশ বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘ইউগভ’। জরিপের প্রশ্নের উত্তরের ভিত্তিতে ব্যবহারকারীদের ইনস্টাগ্রাম অভিজ্ঞতা প্রভাবিত হবে না বলে জানিয়েছে ইনস্টাগ্রাম।

জাতি পরিচয় সংশ্লিষ্ট তথ্য ব্যবহারকারীদের ইনস্টাগ্রাম অভিজ্ঞতাকে আরও উন্নত করবে বলে এক ভিডিও বার্তায় দাবি করেছেন ইনস্টাগ্রাম প্রধান অ্যাডাম মোসেরি।

“অভিজ্ঞতার বিচারে আমরা যদি ইনস্টাগ্রামের সঠিক ও ন্যায়ের পথে থাকা নিশ্চিত করতে চাই, আমাদের আগে বুঝতে হবে যে ভিন্ন ভিন্ন সমাজে এটি কীভাবে কাজ করছে,” যোগ করেন তিনি।

ব্যবহারকারীদের উত্তর পাওয়ার পর ডেটা থেকে বাদ দেওয়া হবে ব্যবহারকারীর পরিচয় ও চিহ্নিতকরণ তথ্য-উপাত্ত। এরপর ডেটা টেক্সাস সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অফ সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা, নর্থইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি এবং ওয়েসিস ল্যাবসহ হাতে গোনা কয়েকটি গবেষণা সংস্থার কাছে সংরক্ষণ করা হবে বলে জানিয়েছে ভার্জ।

নিজস্ব অ্যালগরিদমে কোনো ‘জাতিগত পক্ষপাত’ আছে কি না, সেটি যাচাই করতে ২০২০ সালে বিশেষ দল গঠন করেছিল ইনস্টাগ্রাম। গত শরতে ‘প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ব্যবহারকারীদের মেটার প্রযুক্তি নিয়ে অভিজ্ঞতা কি’ জানতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছিল ইনস্টাগ্রাম ও ফেইসবুকের মূল কোম্পানি মেটা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button