NewsTechnology

স্মার্ট বাংলাদেশের চালিকা শক্তি হবে হাইটেক পার্ক

স্মার্ট বাংলাদেশের চালিকা শক্তি হবে হাইটেক পার্ক

তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেছেন, ‘রংপুরে ১৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ একর জমিতে শুরু হচ্ছে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া হাইটেক পার্ক। এটি রংপুরবাসী ও তরুণ প্রজন্মের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া একটি অন্যতম উপহার।’

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) দুপুরে রংপুর হাইটেক পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন কাজের উদ্বোধন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শ্রম নির্ভর অর্থনীতি থেকে মেধা নির্ভর অর্থনীতির দিকে যাওয়ার জন্যই এই হাইটেক পার্ক নির্মাণ করা হচ্ছে। এই পার্ক হবে সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশের চালিকা শক্তি। যা হবে রংপুর বিভাগের লাখ লাখ তরুণ তরুণীর কর্মসংস্থানের ঠিকানা।’

রংপুর জেলা পরিষদ কমিউনিটি সেন্টারে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া হাইটেক পার্ক ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এ সময় অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (গ্রেড-১) বিকর্ণ কুমার ঘোষ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আবদুল আলীম মাহমুদ, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফি, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর আদর্শবিষয়ক তথ্যচিত্র, ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নপূরণের তথ্যচিত্র এবং প্রকল্পের উদ্যোগে হাই-টেক পার্ক রংপুরের তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। পরে ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ২৫ এপ্রিল সারা দেশে ১২টি হাইটেক পার্ক প্রকল্পের জন্য ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এর মধ্যে রংপুর হাইটেক পার্কের জন্য সম্ভাব্য ব্যয় ১৫৪ দশমিক ৫৪ কোটি টাকা ধরা হয়। বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।5.jpg?fit=725%2C425&ssl=1

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button