ব্যাকরণ

যুগ্ম শব্দ কাকে বলে? কত প্রকার ও কি কি? যুগ্ম শব্দের উদাহরণ।

যুগ্ম শব্দের সংজ্ঞাঃ সমার্থক বা প্রায়সমার্থক, বিপরীতার্থক, বিভিন্নার্থক দুটি শব্দ সমাসবদ্ধ হয়ে এক শব্দে পরিণত হলে তাকে যুগ্মশব্দ (জোড়া বা যুগল শব্দ) বলে।

যুগ্ম শব্দগুলো সাধারণত তিন প্রকার হয়ে থাকে। যথা– (১) সমার্থক বা প্রায় সমার্থক, (২) বিপরীতার্থক ও (৩) বিভিন্নার্থক।

১) সমার্থক বা প্রায় সমার্থক যুগ্মশব্দঃ

  • অনুনয় – বিনয়
  • আদর – যত্ন
  • আহার – বিহার
  • ক্রিয়া – কর্ম
  • ছেলে ছোকরা

বাক্যে প্রয়োগ

আইন-কানুন : ফুটবল খেলায় অনেক আইন-কানুন মেনে চলতে হয়।

আদব-কায়দা : বিশিষ্ট ভদ্র পরিবারে আলাদা আদব-কায়দা পরিলক্ষিত হয়।

ইট-পাথর : শহর বন্দরে ইট-পাথরের বাড়িঘর প্রায়ই দেখা যায়।

কিল-চড় : চোরটাকে কিল-চড় দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

খড়-কুটা : পাখি খড়-কুটা দিয়ে গাছে বাসা বাঁধে।

খেলা-ধুলা : খেলা-ধুলা শিক্ষার অঙ্গ।

গরিব-কাঙাল : চৌধুরী সাহেব অনেক গরিব-কাঙালীকে খাইয়ে থাকেন।

চোর-ডাকাত : চোর-ডাকাতের উপদ্রব বেড়েই চলেছে।

জ্ঞানী-গুণী : জ্ঞানী-গুণীর উপদেশ মতো চলবে।

টাকা-কড়ি : বর্তমানে টাকা-কড়ির অভাবে কিছুই করতে পারছি না।

ধূলা-বালি : সারাদিনের ধূলা-বালিতে গা চড় চড় করছে।

২) বিপরীতার্থক যুগ্ম শব্দঃ

  • আকাশ – পাতাল
  • ইচ্ছা – অনিচ্ছা
  • গুণ – ভাগ
  • ঠাণ্ডা – গরম
  • দোষ – গুণ

বাক্যে প্রয়োগ

আরাম-আয়েস : সফরে বের হওয়ার আগেই আরাম-আয়েসের কথা চিন্তা করতে হয় না।

উথান-পতন : উথান-পতন জাগতিক নিয়ম।

দীন-দুনিয়া : দীন-দুনিয়ার মালিক আল্লাহ্ই আমাদের একমাত্র উপাস্য।

মরণ-বাঁচন : মরণ-বাঁচন আল্লাহর হাতে।

সুখ-দুঃখ : সুখ-দুঃখ নিয়েই মানব জীবন।

হ্রাস-বৃদ্ধি : চন্দ্রকলার হ্রাস-বৃদ্ধি হয়।

আরো পড়ুনঃ-

১। শব্দ কাকে বলে? ধ্বনি ও শব্দের মধ্যে পার্থক্য কি? শব্দ কত প্রকার ও কি কি?

২। পারিভাষিক শব্দ কাকে বলে? পারিভাষিক শব্দের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব।

৩। প্রতিশব্দ কাকে বলে? প্রতিশব্দের উদাহরণ ও প্রয়োজনীয়তা।

৪। বিপরীত শব্দ কাকে বলে? বিপরীত শব্দের শ্রেণিবিভাগ ও প্রয়োজনীয়তা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button