কম্পিউটার হার্ডওয়্যার

প্রধান মেমোরি কাকে বলে? প্রধান মেমোরি কত প্রকার ও কি কি?

কম্পিউটারের কেন্দ্রীয় প্রক্রিয়াকরণ অংশে (CPU) ডেটা প্রসেসিং করার সময় ডেটাগুলো যে মেমোরিতে অবস্থান করে তাকে প্রধান মেমোরি (Main Memory) বলে। সিপিইউ এর কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত ডেটা ও ব্যবহারিক প্রোগ্রাম এই প্রধান মেমোরিতেই অবস্থান করে থাকে। সুতরাং ব্যবহারকারী দ্বারা ডেটা ও ইনস্ট্রাকশন ইনপুট দেওয়ার পর এগুলো প্রথমে প্রধান মেমোরিতে জমা হয় এবং এর প্রক্রিয়াকরণ চলতে থাকে। প্রধান মেমোরি সাধারণত দুপ্রকার। যথা-
(ক) র‌্যাম (Random Access Memory-RAM)
(খ) রম (Read Only Memory-ROM)

(ক) র‌্যাম (Random Access Memory-RAM) : যে স্মৃতিতে তথ্য মুছে ফেলে ঐ জায়গায় নতুন তথ্য লেখা যায় এবং সেই তথ্য প্রয়োজন অনুসারে ব্যবহার করা যায় তাকে Random Access Memory (RAM) বলে। তবে বিদ্যুৎ চলে গেলে বা কম্পিউটার অফ/বন্ধ করলে এর তথ্য মুছে যায়। প্রাইমারি স্টোরেজকে সাধারণত র‌্যাম বলে কারণ সরাসরি ডেটা এবং ইন্সট্রাকশন সংরক্ষণ এবং পুনরুদ্ধার করতে এই মেমোরির যে কোনো লোকেশন সিলেক্ট ও ব্যবহার করা সম্ভব। মেমোরির প্রত্যেকটি আলাদা আলাদা লোকেশন অন্য লোকেশনের মতোই এক্সেস করা সহজ এবং একই পরিমাণ সময়ের প্রয়োজন হয়। এটাকে রিড/রাইট মেমোরিও বলা হয় কারণ র‌্যাম চিপে তথ্য লেখাও যায় আবার এ থেকে তথ্য পড়াও যায়।
(খ) রম (Read Only Memory-ROM) : যে স্মৃতিতে তথ্য শুধু পাঠ করা যায় কিন্তু কোনো নতুন তথ্য সংযোজন করা যায় না তাকে Read Only Memory (ROM) বলে। এটি কম্পিউটার এবং অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রে ব্যবহার করা হয়। ROM এ তথ্য স্থায়ীভাবে সংরক্ষণ করা হয়। যখন বিদ্যুৎ চলে যায় অথবা কম্পিউটার বন্ধ করা হয় তখন যে সমস্ত তথ্য ROM এর মধ্যে থাকে তা মুছে যায় না। ROM এর একটি ধরন PROM। যে সমস্ত ROM চিপে ব্যবহারকারী নিজেদের ইচ্ছামতো প্রোগ্রাম সংরক্ষণ করতে পারে তাকে PROM চিপ বলে। PROM এ একবার প্রোগ্রাম সংরক্ষণ করার পর সংরক্ষিত তথ্য আর পরিবর্তন করা যায় না। ROM এর আরেকটি ধরন হচ্ছে EPROM যা PROM এর উপযুক্ত সমস্যা সমাধান করতে পারে। এখানে তথ্য মুছে ফেলা যায় এবং চিপকে পুনরায় প্রোগ্রাম করে নতুন তথ্য সংরক্ষণ করা যায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button